সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্‌সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক সুন্নতি সামগ্রীর অনুকরণে কিছু সুন্নতি সামগ্রীর ছবি (সংক্ষিপ্ত বর্ণনাসহ)

মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন, নিশ্চয়ই তোমাদের জন্য আমার রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মধ্যে রয়েছে উত্তম আদর্শ। (সূরা আহযাব)

আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ করেন, হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলেদিন, যদি তারা আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত লাভ করতে চায় তাহলে তারা যেনো আপনার অনুসরণ করে, তাহলে আমি আল্লাহ পাক স্বয়ং তাদেরকে মুহব্বত করবো, তাদেরকে ক্ষমা করবো, তাদের প্রতি দয়ালু হবো; নিশ্চয়ই আল্লাহ পাক ক্ষমাশীল ও দয়ালু। (সুরা আল ইমরান ৩১)

সুন্নতের ফযীলত সম্পর্কে হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন, “যে ব্যক্তি আমার সুন্নতকে মুহব্বত করলো, সে মূলতঃ আমাকেই মুহব্বত করলো। আর যে আমাকে মুহব্বত করবে, সে আমার সাথে জান্নাতে থাকবে।” (তিরমিযী শরীফ)

অন্যত্র ইরশাদ হয়েছে, আখিরী যামানায় যে ব্যক্তি একটি সুন্নত আঁকড়ে ধরে থাকবে তথা আমল করবে তাকে এর বিনিময়ে একশত শহীদ এর ছওয়াব প্রদান করা হবে।

সুন্নতি পাগড়ি মুবারক:

b1cd9d12d66537a02ca15f22b7e94a47_xlarge

পাগড়ীর সংক্ষিপ্ত বর্ণনা: পাগড়ী পরিধান করা দায়েমী সুন্নত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সর্বদা পাগড়ী মোবারক পরিধান করতেন। তিনি ঘরেও পাগড়ী মোবারক পরিধান করতেন। মক্কা শরীফ বিজয়ের সময়ে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মাথা মোবারক-এ কাল পাগড়ী মোবারক ছিল। উনার পাগড়ী মুবারক-এর নিচে এবং পাগড়ী মুবারক ব্যতীত শুধু টুপিও ব্যবহার করেছেন। Continue reading

Posted in সুন্নতে হাবীবী ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম | ১ টি মন্তব্য

সুমহান ২১শে শাওওয়াল শরীফ: ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার আক্বদ মুবারক উনার সুমহান দিন

উম্মুল মু’মিনীন হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম তিনি ছিলেন আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সহধর্মিণী অর্থাৎ আহলিয়া।
সম্মানিত পিতা আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন হযরত আবু বকর ছিদ্দীক্ব আলাইহিস সালাম ইবনে আবু কুহাফা ইবনে আমির ইবনে আমর ইবনে কা’ব ইবনে সা’দ ইবনে তাইম ইবনে মুররাহ আলাইহিমুস সালাম, সম্মানিতা মাতা হযরত উম্মে রুমান বিনতে আমের বিন উমায়রা বিন যাহল ইবনে দাহমান ইবনুল হারিস ইবনে গানাম ইবনে মালিক ইবনে কিনানা আলাইহিমুস সালাম। আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, Continue reading

Posted in আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম | মন্তব্য দিন

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনাদের বিরোধিতা করতেই ব্রিটিশরা বাল্যবিবাহ বিরোধী আইন করে; যা মানা মুসলমানদের জন্য কাট্টা কুফরীর অন্তর্ভুক্ত

ব্রিটিশ সরকার উদ্দেশ্যমূলকভাবেই মেয়েদের বিয়ে বসা বা বিয়ে দেয়ার জন্য কমপক্ষে ১৮ বছর বয়স হওয়ার আইন বা শর্ত করে দেয় এবং ১৮ বছর বয়সের নিচে কোনো মেয়েকে বিয়ে দেয়া, বিয়ে করা বা কোনো মেয়ের জন্য বিয়ে বসা দ-নীয় অপরাধ বলে সাব্যস্ত করে। নাঊযুবিল্লাহ! যা সম্পূর্ণরূপে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ্ শরীফ উনার খিলাফ। Continue reading

Posted in আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম | মন্তব্য দিন

সুমহান ২১শে শাওয়াল শরীফ : মুবারক প্রেক্ষাপট

আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পুরোপুরিভাবে ওহী মুবারক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ও পরিচালিত। উনার যাবতীয় কার্যক্রম মুবারক ওহী মুবারক দ্বারা সম্পাদিত হয়। আর তারই ধারাবাহিকতায় হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার সাথে শাদী মুবারকের বিষয়টিও ওহী মুবারক দ্বারা সম্পাদিত।
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে,
عن حضرت عَائِشَة عليها السلامَ أَنَّهَا قَالَتْ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم أُرِيتُكِ فِى الْمَنَامِ ثَلاَثَ لَيَالٍ جَاءَنِى بِكِ الْمَلَكُ فِى سَرَقَةٍ مِنْ حَرِيرٍ فَيَقُولُ هَذِهِ امْرَأَتُكَ فَأَكْشِفُ عَنْ وَجْهِكِ فَإِذَا أَنْتِ هِىَ فَأَقُولُ إِنْ يَكُ هَذَا مِنْ عِنْدِ اللَّهِ يُمْضِهِ Continue reading

Posted in আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম | মন্তব্য দিন

উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার ফাযায়িল ও ফযীলত মুবারক

উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার সম্পর্কে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে-
عن حضرت انس رضى الله تعالى عنه قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم احب النساء الى حضرت عائشة عليها السلام ومن الرجال ابوها.
অর্থ: হযরত আনাস বিন মালিক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, মহিলাদের মধ্যে আমার নিকট সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম ও পুরুষদের মধ্যে উনার সম্মানিত পিতা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম তিনি সর্বাধিক প্রিয়। Continue reading

Posted in আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম | মন্তব্য দিন

সুমহান বেমেছাল বরকতময় ২১শে শাওওয়াল শরীফ

     মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র ‘সূরা আহযাব’ শরীফ উনার ৩০ নম্বর পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আহলিয়াগণ অর্থাৎ হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম! নিশ্চয়ই আপনারা অন্য কোনো নারীদের মতো নন।’ আজ সুমহান বেমেছাল বরকতময় ২১শে শাওওয়াল শরীফ- সাইয়্যিদাতুন নিসা, উম্মুল মু’মিনীন হযরত আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র আক্বদ বা নিকাহ মুবারক দিবস। ৬ বৎসর বয়স মুবারকে উনার আক্বদ বা নিকাহ মুবারক সম্পন্ন হয়; যা বাল্যবিবাহ হিসেবে সাব্যস্ত। আর একারণেই বাল্যবিবাহ খাছ সুন্নত মুবারক। তাই বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে বলা ও বিরোধিতা করা উভয়টাই কাট্টা কুফরী। তাই সকল মুসলমান বিশেষ করে মহিলাদের জন্য ফরয হচ্ছে- প্রতি ক্ষেত্রে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনাকে অনুসরণ-অনুকরণ করা। অনুরূপভাবে বর্তমানে যিনি উনাকে উত্তমভাবে অনুসরণ-অনুকরণ করেন উনাকে অনুসরণ-অনুকরণ করা। Continue reading

Posted in আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম | মন্তব্য দিন

সেই বিশেষ বিশেষ দিনগুলোর মধ্যে একটি হলো বিবাহ-শাদী বা নিকাহ মুবারক উনার বরকতময় দিন।

     মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হে হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি তাদেরকে (উম্মাহকে) আমার বিশেষ বিশেষ দিনগুলো স্মরণ করিয়ে দিন।’ আখাচ্ছুল খাছ ওলীআল্লাহগণ উনাদের সমগ্র হায়াত মুবারক বরকত ও রহমতপূর্ণ হলেও উনাদের সাথে সংশ্লিষ্ট বিশেষ বিশেষ কিছু দিনে মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার আখাচ্ছুল খাছ ওলীগণ উনাদের মুবারক উসীলায় খাছ রহমত, মাগফিরাত ও সাকীনা বর্ষণ করেন। সেই বিশেষ বিশেষ দিনগুলোর মধ্যে একটি হলো উনাদের বিবাহ-শাদী বা নিকাহ মুবারক উনার বরকতময় দিন। যা সকলের জন্য ঈদ বা খুশির দিনও বটে। মানুষ বিশেষ বিশেষ সেদিনগুলো পালন করতঃ তার হিস্সা লাভ করে নাজাত, সাকীনা ও মাগফিরাত লাভ করে থাকে। তাই সকলের জন্য দায়িত্ব-কর্তব্য হচ্ছে, অত্যন্ত গুরুত্ব, মুহব্বত ও তা’যীমের সাথে উক্ত বিশেষ বিশেষ দিনগুলো পালন করা। Continue reading

Posted in ক্বওল শরীফ | মন্তব্য দিন

‘যে ব্যক্তি পর্দা করে না ও অধীনস্থদের পর্দায় রাখে না সে দাইয়্যূছ।’

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘দাইয়্যূছ কখনো জান্নাতে প্রবেশ করবে না।’ মহাসম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে ‘যে ব্যক্তি পর্দা করে না ও অধীনস্থদের পর্দায় রাখে না সে দাইয়্যূছ।’ টেলিভিশন, ডিশ এন্টেনা, ছবি, সিনেমা, নাটক, ফ্যাশন শো, সৌন্দর্যের প্রতিযোগিতা, ইন্টারনেট তথা ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব এবং গান-বাজনা, খেলাধুলা এসবগুলো মুসলমান উনাদেরকে ‘দাইয়্যূছ’ বানানোর অর্থাৎ বেপর্দা-বেহায়া করার বিধর্মীয় বা বিজাতীয় সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র। অর্থাৎ এগুলোর মাধ্যমে কাফির-মুশরিক, বেদ্বীন-বদদ্বীনগুলো মুসলমান উনাদেরকে বেপর্দা করে ‘দাইয়্যূছ’ বানিয়ে জাহান্নামী করতে চাচ্ছে। নাউযুবিল্লাহ! তাই প্রত্যেক মুসলমান উনাদের জন্য ফরয হচ্ছে, উল্লিখিত হারাম বিষয়গুলো হতে বিরত থেকে ও শরয়ী পর্দা পালন করা এবং কাফির-মুশরিকদের সর্বপ্রকার ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে সজাগ ও সতর্ক থাকা। Continue reading

Posted in ক্বওল শরীফ | মন্তব্য দিন