সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্‌সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক সুন্নতি সামগ্রীর অনুকরণে কিছু সুন্নতি সামগ্রীর ছবি (সংক্ষিপ্ত বর্ণনাসহ)

মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন, নিশ্চয়ই তোমাদের জন্য আমার রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মধ্যে রয়েছে উত্তম আদর্শ। (সূরা আহযাব)

আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ করেন, হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলেদিন, যদি তারা আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত লাভ করতে চায় তাহলে তারা যেনো আপনার অনুসরণ করে, তাহলে আমি আল্লাহ পাক স্বয়ং তাদেরকে মুহব্বত করবো, তাদেরকে ক্ষমা করবো, তাদের প্রতি দয়ালু হবো; নিশ্চয়ই আল্লাহ পাক ক্ষমাশীল ও দয়ালু। (সুরা আল ইমরান ৩১)

সুন্নতের ফযীলত সম্পর্কে হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন, “যে ব্যক্তি আমার সুন্নতকে মুহব্বত করলো, সে মূলতঃ আমাকেই মুহব্বত করলো। আর যে আমাকে মুহব্বত করবে, সে আমার সাথে জান্নাতে থাকবে।” (তিরমিযী শরীফ)

অন্যত্র ইরশাদ হয়েছে, আখিরী যামানায় যে ব্যক্তি একটি সুন্নত আঁকড়ে ধরে থাকবে তথা আমল করবে তাকে এর বিনিময়ে একশত শহীদ এর ছওয়াব প্রদান করা হবে।

সুন্নতি পাগড়ি মুবারক:

b1cd9d12d66537a02ca15f22b7e94a47_xlarge

পাগড়ীর সংক্ষিপ্ত বর্ণনা: পাগড়ী পরিধান করা দায়েমী সুন্নত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সর্বদা পাগড়ী মোবারক পরিধান করতেন। তিনি ঘরেও পাগড়ী মোবারক পরিধান করতেন। মক্কা শরীফ বিজয়ের সময়ে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মাথা মোবারক-এ কাল পাগড়ী মোবারক ছিল। উনার পাগড়ী মুবারক-এর নিচে এবং পাগড়ী মুবারক ব্যতীত শুধু টুপিও ব্যবহার করেছেন। Read the rest of this entry

পবিত্র শবে মি’রাজ শরীফ

pobitro shob e miraj sh areefপবিত্র মি’রাজ শরীফ নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বেমেছাল ফাযায়িল-ফযীলতের মধ্য হতে একটি বিশেষ ফাযায়িল-ফযীলত; যা বিশ্বাস করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরয। আর অস্বীকার ও অবজ্ঞা করা কাট্টা কুফরীর অন্তর্ভুক্ত।

আখিরী রসূল হাবীবুল্লাহ, নূরে মুজাসসাম হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মি’রাজ শরীফ হয়েছে ৩৪ বার। এক বার জিসমানী বা সশরীর মুবারকে। আর বাকি ৩৩ বার রূহানীভাবে হয়েছে। মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি দুনিয়াবী হিসেবে ৫১তম বয়স মুবারকে ২৬ মাহে রজব ইয়াওমুল আহাদি বা রোববার দিবাগত রাত্রে অর্থাৎ ২৭ রজব ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীমি বা সোমবার শরীফ রাত্রে পবিত্র কা’বা শরীফ থেকে পবিত্র বাইতুল মুকাদ্দাস শরীফ, সিদরাতুল মুনতাহা হয়ে আরশে মুয়াল্লায় মহান আল্লাহ পাক উনার সাথে মুবারক সাক্ষাৎ করে আবার যমীনে তাশরীফ আনেন। যা বিশিষ্ট ৪৫ জন হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা বর্ণনা করেছেন।

Read the rest of this entry

ইহুদী, নাছারা ও মুশরিক অর্থাৎ হিন্দু-বৌদ্ধ, মজুসী প্রকৃতপক্ষে সমস্ত বিধর্মীরাই মুসলমানগণ উনাদের চরম শত্রু।

         mosolmander sotru   মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আহলে কিতাব তথা কাফির-মুশরিকরা চায়- তোমরা পবিত্র ঈমান আনার পর তোমাদেরকে হিংসা বা শত্রুতাবশতঃ কাফির বানিয়ে দিতে।’ নাউযুবিল্লাহ!

ইহুদী, নাছারা ও মুশরিক অর্থাৎ হিন্দু-বৌদ্ধ, মজুসী প্রকৃতপক্ষে সমস্ত বিধর্মীরাই মুসলমানগণ উনাদের চরম শত্রু

তাই তারা সুকৌশলে মুসলমানগণ উনাদের দ্বারা হারামকে হালাল, হালালকে হারাম বানিয়ে এবং হারাম কাজে খুশি প্রকাশ করিয়ে মুসলমান উনাদেরকে কাফিরে পরিণত করছে। নাউযুবিল্লাহ!ফলে মুসলমানণ উনাদের সমস্ত নেক আমল বরবাদ হচ্ছে, স্ত্রী তালাক হচ্ছে, সন্তান বৈধতা হারাচ্ছে। নাঊযুবিল্লাহ!যার কারণে দেখা যাচ্ছে যে, মুসলমান নামধারী হওয়ার পরও সে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিরুদ্ধে কথা বলছে। তাই প্রত্যেক মুসলমানকে এ বিষয়টি ভালোভাবে ফিকির করতে হবে।

Read the rest of this entry

সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে যারা বিনা দলীলে কথা বলে তারা মিথ্যাবাদী।

     dalilমহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘যদি তোমরা সত্যবাদী হয়ে থাকো তবে দলীল পেশ করো।’

সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে যারা বিনা দলীলে কথা বলে তারা মিথ্যাবাদী।

“মহাসম্মানিত পবিত্র মি’রাজ শরীফ পবিত্র রজবুল হারাম মাস উনার ২৭ তারিখ ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীম শরীফ (সোমবার) রাতেই হয়েছে”-

এটাই সবচেয়ে মশহুর ও গ্রহণযোগ্য এবং দলীলভিত্তিক মত। এর বিপরীত মতগুলো গ্রহণযোগ্য নয়।

যারা হারাম টিভি চ্যানেলসহ নানা পত্র-পত্রিকায় ও বই-পুস্তকের মাধ্যমে পবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার তারিখ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ায় তারা নিজেরাই বিভ্রান্ত এবং উলামায়ে ‘সূ’ বা ধর্মব্যবসায়ীর অন্তর্ভুক্ত।

তারা মূলত মুসলমান উনাদেরকে পবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার সম্মানিত রাত ও দিনের বরকত ও ফযীলত থেকে মাহরূম করার উদ্দেশ্যেই পবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার তারিখ নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করে।

Read the rest of this entry

পবিত্র মসজিদে নববী শরীফ উনার নকশায় পবিত্র সুন্নতী জামে মসজিদ ও তৎসংশ্লিষ্ট মাদরাসা নির্মাণ করার জন্য মুবারক নির্দেশনা এবং উহার গৌরবময় ইতিহাস

Sunnoti Masjid Rajarbag shareefপবিত্রতম সুন্নতী জামে মসজিদ ও তৎসংশ্লিষ্ট মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ এই পবিত্রতম নাম মুবারক কায়িনাত জুড়ে এমন-একক ইতিহাস”, একক স্থান ও একক পরিচিতি মুবারক লাভ করেছেন যে, তা সোনালী ইতিহাসের পাতায় বিরল। সুবহানাল্লাহ! কাজেই এই বৈশিষ্ট্যপূর্ণ, রহমতপূর্ণ, বরকতপূর্ণ, সাকীনাপূর্ণ ও ফযীলতপূর্ণ পবিত্রতম সুন্নতী জামে মসজিদ ও তৎসংশ্লিষ্ট মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ উনার গৌরবময় ইতিহাস সকলেরই জানা আবশ্যক বিধায় এ বিষয়ে সংক্ষিপ্তভাবে আলোকপাত করা হলো।

উল্লেখ্য যে, আমাদের প্রাণের আক্বা সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, জামিউল আলক্বাব, আওলাদুর রসূল সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি দায়িমী (সর্বক্ষণ) যাহিরী এবং বাতিনী, জিসমানী ও রূহানীভাবে নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক ছোহবত মুবারকেই জীবন-যাপন করেন এবং সাংসারিক, পারিবারিক ও পবিত্র দ্বীনি সকল প্রকার কার্যক্রম মুবারকগুলো উনার মুবারক ইজাযত ও নির্দেশক্রমেই করেছেন, করছেন এবং করবেন। সুবহানাল্লাহ!

Read the rest of this entry

সুলত্বানুল হিন্দ, গরীবে নেওয়াজ, হাবীবুল্লাহ হযরত খাজা ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার জীবনী মুবারক থেকে বর্তমান বিশ্ববাসীর জন্য শিক্ষা

Khawaj Babaসাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সুলত্বানুল হিন্দু, গরীবে নেওয়াজ, হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন চীশতি আজমিরী, সানজিরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে কুতুবুল হিন্দ তথা হিন্দুস্তানের কুতুব করে হিন্দুস্তানে প্রেরণ করেছিলেন। হাবীবুল্লাহ হযরত খাজা ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক নির্দেশে হিন্দুস্তানে এসে এক কোটিরও অধিক লোককে ঈমান দান করেছিলেন। সুবহানাল্লাহ! তিনি মহা যালিম হিন্দু রাজা পৃথ্বিরাজের রাজত্বকে তছনছ করে দিয়ে তথায় পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার ব্যাপক প্রচার-প্রসার করেছিলেন। উনার মুবারক দোয়ার বদৌলতে পৃথ্বিরাজ হযরত শেখ শিহাবুদ্দীন মুহম্মদ ঘুরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নিকট বন্দি হয় এবং নিহত হয়।

Read the rest of this entry

পীর হওয়ার পূর্ব শর্ত গুলো কি কি

Pir Howar Sorto gulo ki* হযরত ইমাম মালেক রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন, “যে ব্যক্তি ফিকাহের ইলম হাসিল করল। কিন্তু তাসাউফের ইলম শিক্ষা করল না, সে ফাসেক। আর যে ব্যক্তি তাসাউফের ইলম হাসিল করল, কিন্তু ফিকাহের ইলম শিক্ষা করল না, সে জিন্দিক। তবে যে ব্যক্তি জাহেরী ও বাতেনী উভয় ইলম শিক্ষা করল। সেই সত্যিকারের হক্কানী আলেম। (মেশকাত শরিফের শরাহ মেরকাত, কাহেরার ১ খ. ৩১৩ পৃ. এবং বাইরুত ২ খ. ৪৭৮ পৃ.)
* হযরত জুনাইদ বোগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন- “তুমি আলেম হয়ে সুফী হও,সুফী হয়ে আলেম হইয়োনা ধ্বংস হয়ে যাবে ” ।
    তাছাউফ নিয়ে হাফেজ ইবনে কাইয়্যূম রহমতুল্লাহি আলাইহি এর অভিমত-

Read the rest of this entry

ওলী-আল্লাহ উনাদের সিলসিলা জারী থাকবে ক্বিয়ামত পর্যন্ত

oli Alla Goner Silsilaহযরত সোরায়হ ইবনে ওবাইদ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু হতে বর্ণিত হয়েছে যে, হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেছেন,
“আমি হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে বলতে শুনেছি – আবদাল নামক ওলী- আল্লাহ শাম দেশে হয়। তাঁরা চল্লিশ জন পুরুষ। তাঁদের মধ্য হতে কেহ পরলোকগমন করলে তাঁর স্থানে অন্য একজনকে আগমন করেন। তাঁদের উছিলায় বৃষ্টিপাত হয়, শত্রুদের উপর বিজয় দান করা হয়। তাঁদের উছিলায় শাম দেশের অধিবাসীরা আল্লাহর গজব থেকে পরিত্রাণ পায়”।
হযরত মালিক বিন আনাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু  বর্ণনা করেন যে, “হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ফরমায়েছেন যে, আমাদের জন্য ৪০ জন ওলী আছেন। এঁদের মধ্যে ১২ জন সিরিয়ায় এবং ১৮ জন ইরাকে রয়েছেন”। Read the rest of this entry

সুমহান বরকতময় পবিত্র ১৩ রজবুল হারাম শরীফ।

           13 Rojobul Haram Shareef মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে পবিত্র থেকে পবিত্রতম করেই সৃষ্টি করেছেন।

সুমহান বরকতময় পবিত্র ১৩ রজবুল হারাম শরীফ।

সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রথম ইমাম, ইমামুল আউওয়াল হযরত আলী কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহু আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের দিন।

যা এ বছরের অর্থাৎ ১৪৩৭ হিজরী সনের জন্য ২২ হাদি আশার ১৩৮৩ শামসী, ২১ এপ্রিল ২০১৬ ঈসায়ী, ইয়াওমুল খামীস বা বৃহস্পতিবার।

Read the rest of this entry

সউদি ওহাবী সরকার মুসলমান নয়, ইহুদি ।

soidi ohabi sorkarজাজিরাতুল আরবকে মুসলমান সম্মান করে বিধায় এর শাসকগোষ্ঠীর প্রতি মুসলমানদের দুর্বলতা থাকে। আর এ দুর্বলতাকে পুরোপুরি অপব্যবহার করছে ইহুদি সউদি ওহাবী সরকার । কিন্তু কিছু বকলম , অজ্ঞ ,অথর্ব মুসলমান তাদের হাক্বিকত ফাস হবার পরেও বিশ্বাস করতে চায়না যে সউদি ওহাবী সরকার মুসলমান নয়। সউদি ওহাবী সরকার এর জীবনপ্রনালী , চালচলন, কাজ কর্ম কখনোই ইসলাম এর সাথে খাপ খায়না । সউদি উহুদি ওহাবী সরকার এর সকল কাজ কর্ম ইসলাম এর খিলাপ। হেন অপকর্ম নাই যা সউদি ওহাবী সরকার করছেনা ।

Read the rest of this entry

দিগন্তের আলো- পর্বঃ পহেলা বৈশাখ মুসলমানদের উৎসব নয়।

Follow

Get every new post delivered to your Inbox.

Join 4,199 other followers

%d bloggers like this: